ব্রেকিং নিউজ


করোনায় আরো ২ জনের মৃত্যু চট্টগ্রামে

চট্টগ্রাম, ১৩ জুন ২০২১ (আলো) : চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরও ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময়ে ৫৩১ জন সুস্থ হয়েছে। নতুন ৬৭ জনের শরীরে ভাইরাস শনাক্ত হয়। সংক্রমণ হার ৯ দশমিক ০৪ শতাংশ। সিভিল সার্জন কার্যালয়ের প্রতিবেদনে দেখা যায়, গতকাল শনিবার নগরীর ছয়টি ও কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের ৭৪১ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। নতুন শনাক্ত ৬৭ জনের মধ্যে শহরের বাসিন্দা ৪৯ জন এবং পাঁচ উপজেলার ১৮ জন। উপজেলায় আক্রান্তদের মধ্যে সর্বোচ্চ মিরসরাইয়ে ১০ জন, সীতাকু-ে ৪ জন, রাঙ্গুনিয়ায় ২ জন এবং হাটহাজারী ও লোহাগাড়ায় ১ জন করে রয়েছেন। জেলায় মোট সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যা বেড়ে এখন ৫৪ হাজার ৮০৭ জন। এর মধ্যে শহরের বাসিন্দা ৪৩ হাজার ৩৯৪ জন ও গ্রামের ১১ হাজার ৪১৩ জন। গতকাল করোনায় আক্রান্ত গ্রামের দু’জন রোগী মারা যান। ফলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬৪২ জন হয়েছে। এতে শহরের বাসিন্দা ৪৫৩ জন ও গ্রামের ১৮৯ জন। সুস্থতার ছাড়পত্র পেয়েছেন ৫৩১ জন। ফলে জেলায় মোট আরোগ্য লাভকারীর সংখ্যা ৪৬ হাজার ১৯১ জনে উন্নীত হয়েছে। এর মধ্যে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন ৬ হাজার ৯৭ জন এবং হোম আইসোলেশেনে থেকে চিকিৎসায় সুস্থ হন ৪০ হাজার ৯৪ জন। হোম আইসোলেশনে নতুন যুক্ত হন ২৮ জন ও ছাড়পত্র নেন ৩৩ জন। বর্তমানে হোম আইসোলেশনে রয়েছেন ১ হাজার ১০৪ জন। উল্লেখ্য, গতকাল মাসের সর্বনিম্ন ৯ দশমিক ০৪ শতাংশ সংক্রমণ হার রেকর্ড হয়। এর আগের সর্বনিম্ন ছিল ৫ জুন, ৯ দশমিক ৬৫ শতাংশ। সর্বোচ্চ সংক্রমণ হার পাওয়া যায় ১১ জুন, ১৫ দশমিক ৭৪ শতাংশ। এছাড়া, আরো দুই জনের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে এ মাসের প্রথম বারো দিনে করোনায় মৃতের সংখ্যা ২০ জনে পৌঁছেছে। মৃত্যুশূন্য ছিল দু’দিন ৩ ও ৪ জুন। ল্যাবভিত্তিক রিপোর্টে দেখা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ফৌজদারহাটস্থ বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল এন্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) ল্যাবে। এখানে ৩৪৫ জনের নমুনায় শহরের ১১ ও গ্রামের ১২ জনের শরীরে করোনাভাইরাস থাকার প্রমাণ মেলে। চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে ৫১ জনের নমুনা পরীক্ষায় গ্রামের একজনসহ ৬ জন জীবাণুবাহক পাওয়া যায়। নগরীর একমাত্র বিশেষায়িত কোভিড চিকিৎসা কেন্দ্র আন্দরকিল্লা জেনারেল হাসপাতালের রিজিওনাল টিবি রেফারেল ল্যাবরেটরিতে (আরটিআরএল) ২০ টি নমুনা পরীক্ষা হলে শহরের ২ টি ও গ্রামের ১ টির রেজাল্ট পজিটিভ পাওয়া যায়। নগরীর বেসরকারি তিন ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরির মধ্যে শেভরনে ২৮০ টি নমুনা পরীক্ষা করে গ্রামের ২ টিসহ ২১ টি, চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালে ২৭ টি নমুনায় গ্রামের ২ টিসহ ৮ টি এবং মেডিকেল সেন্টারে ১৭ টি নমুনার মধ্যে শহরের ৬ টিতে করোনার জীবাণু শনাক্ত হয়। এদিন চট্টগ্রামের ১ টি নমুনা কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে পাঠানো হয়। পরীক্ষায় সেটির রেজাল্ট নেগেটিভ আসে। এছাড়া, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি), চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি এন্ড এনিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু), ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল, এপিক হেলথ কেয়ার ও পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনার কোনো নমুনা পরীক্ষা হয়নি। ল্যাবভিত্তিক রিপোর্ট বিশ্লেষণে বিআইটিআইডি’তে ৬ দশমিক ৬৬, চমেকে ১১ দশমিক ৭৬, আরটিআরএল-এ ১৫ শতাংশ, শেভরনে ৭ দশমিক ৫০, মা ও শিশু হাসপাতালে ২৯ দশমিক ৬৩, মেডিকেল সেন্টারে ৩৫ দশমিক ২৯ এবং কক্সবাজার মেডিকেলে ০ শতাংশ সংক্রমণ হার নির্ণিত হয়। সূত্রঃ বাসস

add_28

নিউজটি শেয়ার করুন

Facebook
এ জাতীয় আরো খবর..
add_29
সর্বশেষ আপডেট
জনপ্রিয় সংবাদ
আজকের পাঠক
15965

add_30
add_31
add_32

সংবাদ শিরোনাম ::