ব্রেকিং নিউজ


শ্রীলংকা পেরেরার সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশকে ২৮৭ রানের টার্গেট দিলো

ঢাকা, ২৩ মে, ২০২১ (আলো) : অধিনায়ক কুশল পেরেরা সেঞ্চুরিতে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে জিততে বাংলাদেশকে ২৮৭ রানের টার্গেট দিলো সফরকারী শ্রীলংকা। টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ২৮৬ রান করে লংকানরা। ওপেনার হিসেবে নেমে ১২০ রান করেন পেরেরা। প্রথম দুই ম্যাচ হেরে সিরিজ হাতছাড়া, তাই হোয়াইটওয়াশ এড়াতে তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে চারটি পরিবর্তন নিয়ে খেলতে নামে শ্রীলংকা। এরমধ্যে তিনজনেরই অভিষেক ঘটে। আর বাংলাদেশের একাদশে পরিবর্তন দু’টি। ওপেনার লিটন দাসের পরিবর্তে মোহাম্মদ নাইম এবং মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনের জায়গায় তাসকিন আহমেদ একাদশে সুযোগ পান। প্রথম দুই ম্যাচে টস ভাগ্যে হারে শ্রীলংকা। আজ মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অবশেষে টস লড়াইয়ে জয় পেয়ে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্বান্ত নেন শ্রীলংকার অধিনায়ক পেরেরা। দানুশকা গুনাতিলকাকে নিয়ে প্রথম ওভার থেকেই মারমুখী মেজাজে পেরেরা। পাওয়ার-প্লেতে ৭৭ রান তুলে ফেলেন তারা। বাংলাদেশ বোলারদের কোন রকম সুযোগ না দিয়ে দু’জনই সমান ৩৮ রান করে তুলেন। পাওয়া-প্লেতে অবিচ্ছিন্ন থাকায় আরো আত্মবিশ্বাসী হয়ে ওঠেন গুনাতিলকা-পেরেরা। ১২তম ওভারে তাদের আত্মবিশ্বাসে চিড় ধরান বাংলাদেশের পেসার তাসকিন। ঐ ওভারের দ্বিতীয় বলে গুনাতিলকার উইকেট উপড়ে ফেলেন তিনি। দলীয় ৮২ রানে প্রথম উইকেট হারায় শ্রীলংকা। ৩৩ বলে ৩৯ রান করেন গুনাতিলকা। একই ওভারের শেষ বলে আবারো শ্রীলংকাকে ধাক্কা দেন তাসকিন। তিন নম্বরে খেলতে নামা পাথুম নিশাংকাকে রানের খাতা খোলার আগে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিতে বাধ্য করেন তাসকিন। নিজের দ্বিতীয় ওভারের দুই উইকেট নিয়ে বিধ্বংসী হয়ে ওঠেন তাসকিন। বিধ্বংসী মেজাজে আরও উইকেট শিকারের জন্য মুখিয়ে ছিলেন তাসকিন। কিন্তু তাসকিনের জোড়া আঘাতের পর ঘুঁড়ে দাঁড়ানোর পথের খোঁজে ছিলো শ্রীলংকা। পেরেরা ও কুশল মেন্ডিসের ব্যাটিং দৃঢ়তায় সেই পথ পেয়ে যায় শ্রীলংকা। তৃতীয় উইকেটে ৮০ বলে ৬৯ রানের জুটি গড়েন তারা। জমে যাওয়া জুটি ভাঙ্গতে বোলিংএ বারবার পরিবর্তন করেছিলেন অধিনায়ক তামিম। অবশেষে সেই তাসকিনই ভরসার প্রতীক হয়ে উঠেন। ২২ রান করা মেন্ডিসকে শিকার করেন তাসকিন। ১৫১ রানে তৃতীয় উইকেটের পতন হলেও, অন্যপ্রান্তে দলের চাকা সচল রেখেছিলেন পেরেরা। সাকিবের বলে ৬৬ ও ৭৯ রানে যথাক্রমে মুস্তাফিজ-আফিফের হাতে দু’বার জীবন নিয়ে সেঞ্চুরির দোড় গোড়ায় পৌঁছে যান পেরেরা। এরপর ৯৯ রানে আবারো জীবন পান পেরেরা। এবার বোলার ছিলেন মুস্তাফিজুর, ফিল্ডার মাহমুুদুল্লাহ। তাই তিনবার জীবন নিয়ে ৯৯ বলে ১০৪ ম্যাচের ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ষষ্ঠবারের মত সেঞ্চুরির স্বাদ নেন পেরেরা। তিন অংকে পা দিয়েও নিজের ইনিংসটি বড় করছিলেন পেরেরা। তবে পেরেরাকে ১২০ রানে থামিয়ে দেন বাঁ-হাতি পেসার শরিফুল ইসলাম। ১২২ বলে ১১টি চার ও ১টি ছক্কায় ১২০ রান করেন পেরেরা। ৪০তম ওভারে দলীয় ২১৬ রানে আউট হন পেরেরা। পেরেরার আউটের পর শ্রীলংকাকে বড় স্কোর এনে দেয়ার দায়িত্ব ছিলো লোয়ার-অর্ডার ব্যাটসম্যানদের। সিরিজের প্রথমবার খেলতে নামা নিরোশান ডিকবেলা ৭ রান করে রান আউট হন। আর হাসারাঙ্গা ডি সিলভা ১৮ রান করে তাসকিনের চতুর্থ শিকার হন। তবে ধনঞ্জয়া ডি সিলভার ৭০ বলে ৪টি চারে অপরাজিত ৫৫ ও রমেশ মেন্ডিসের অপরাজিত ৮ রানে ৬ উইকেটে ২৮৬ রানের বড় সংগ্রহ পায় শ্রীলংকা। বাংলাদেশের তাসকিন ৯ ওভারে ৪৬ রান দিয়ে ৪ উইকেট নেন। সদ্য আইসিসি ওয়ানডে বোলিং র‌্যাংকিংএ দ্বিতীয়স্থানে উঠা স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ, এ ম্যাচে থাকেন উইকেট শুন্য । ফিল্ডারদের ভুলে উইকেট শিকারের স্বাদ নিতে পারেননি সাকিবও। শ্রীলংকা ইনিংস : দানুশকা গুনাতিলকা বোল্ড ব তাসকিন ৩৯ কুশল পেরেরা ক মাহমুদুল্লাহ ব শরিফুল ইসলাম ১২০ পাথুম নিশাংকা ক মুশফিক ব তাসকিন ০ কুশল মেন্ডিস ক তামিম ব তাসকিন ২২ ধনঞ্জয়া ডি সিলভা অপরাজিত ৫৫ নিরোশান ডিকবেলা রান আউট (শরিফুল) ৭ হাসারাঙ্গা ডি সিলভা ক মিরাজ ব তাসকিন ১৮ রমেশ মেন্ডিস অপরাজিত ৮ অতিরিক্ত (লে বা-৯, নো-১, ও-৭) ১৭ মোট (৫০ ওভার, ৬ উইকেট) ২৮৬ উইকেট পতন : ১/৮২ (গুনাতিলকা), ২/৮২ (নিশাংকা), ৩/১৫১ (মেন্ডিস), ৪/২১৬ (পেরেরা), ৫/২৩১ (ডিকবেলা), ৬/২৬৬ (হাসারাঙ্গা)। বাংলাদেশ বোলিং : শরিফুল : ৮-০-৫৬-১ (ও-১, নো-১), মিরাজ : ১০-০-৪৮-০ (ও-১), মোসাদ্দেক : ৩-০-৩২-০, তাসকিন আহমেদ : ৯-০-৪৬-৪ (ও-৩), মুস্তাফিজুর রহমান : ১০-০-৪৭-০ (ও-২), সাকিব আল হাসান : ১০-০-৪৮-০।

add_28

নিউজটি শেয়ার করুন

Facebook
এ জাতীয় আরো খবর..
add_29
সর্বশেষ আপডেট
জনপ্রিয় সংবাদ
আজকের পাঠক
16276

add_30
add_31
add_32

সংবাদ শিরোনাম ::